ঘুমঃ সুখের পরিমাপক

in #bdclast year (edited)

"ঘুম" কে সুখের পরিমাপক হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে,ফিতা দিয়ে যেমন উচ্চতা মাপা হয় ঠিক তেমন।এটা আবার কেমন কথা!হ্যাঁ "ঘুম" দিয়ে হিসাব করা যাবে একজন মানুষ কতোটুকু সুখে আছে নাকি দুঃখে আছে।মানুষ কখন সুখে থাকে?যখন তার মনে কোনো দুঃশ্চিন্তা থাকে না,মনে যখন আনন্দ থাকে,তখন মানুষ সুখে থাকে।আর মানুষের মনে যখন কোনো দুঃশ্চিন্তা থাকে না, তখন মানুষ নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারে।

অর্থাৎ এমন যদি হয়,আপনি রাতে বিছানায় শুয়েছেন আর ঘুমিয়ে পড়েছেন,এক ঘুমে রাত কেটে গেলো,ঘুম থেকে উঠে দেখেন সকাল হয়ে গেছে,তাহলে আর এতো কিছু ভাবার দরকার নেই, আপনি নিশ্চিত থাকেন আপনি একজন সুখী মানুষ।সারারাত ঘুমালাম বলে আমি সুখী মানুষ।এটা কিভাবে মেনে নিবো?সারারাত ঠিকমতো ঘুমিয়েছেন মানে আপনার মনে কোনো দুঃশ্চিন্তা নেই,দুঃশ্চিন্তা যদি থাকতো তাহলে ঠিকমতো ঘুমাতে পারতেন না,আর দুঃশ্চিন্তা যেহেতু নেই সেহেতু আপনার মনে সুখ আছে।

PicsArt_03-15-10.10.52.jpg

আপনার পারিবারে সমস্যা চলছে,কর্মক্ষেত্রে সমস্যা,পড়ালেখায় সমস্যা, সামনে পরীক্ষা কিছুই পড়া হয়নি,ব্যবসা মন্দা যাচ্ছে, যেই সমস্যাই হোক না কেনো,আপনি যখন রাতে বিছানায় শুতে যাবেন ঘর অন্ধকার করে,তখন সব কিছুর চিন্তা আপনাকে ঝাপটে ধরবে।আর এই চিন্তা আপনার রাতের ঘুম কেড়ে নিবে,আর আপনি ঘুমাতে পারবেন না।আপনি সমস্যার মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন বলেই ঘুমাতে পারছেন না।উল্টোভাবে বললে ঘুমাতে পারছেন না কারণ আপনার মনে সুখ নেই।
তাই বলাই যায়,ঘুম সুখের পরিমাপক।

ঘুম যে কতোবড় নিয়ামত,যে ব্যক্তি রাতে ঘুমানোর চেষ্টা করেও ঘুমাতে পারে না সে জানে।রাত্রি বেলা,অন্ধকার ঘর সবাই ঘুমাচ্ছে,কিন্তু আপনার ঘুম নেই,নানান দুঃশ্চিন্তা মনকে আচ্ছন্ন করে রেখেছে,বিছানা ছেড়ে উঠে যাওয়ারও উপায় নেই,কারণ আপনি পরিবারে বসবাস করেন,পরিবারের অন্যান্যদের সুযোগ সুবিধাও আপনাকে দেখতে হয়।সেই সময়টায় নিজেকে বড় অসহায় মনে হবে।কারণ তখন না ঘুমিয়ে শুয়ে শুয়ে রাত কাটাতে হয়।

তবে সারাদিন ঘুমানোর কারণে রাতে ঘুমাতে না পারলে বা ঘুম না পেলে সেটা অন্য কথা।চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে একজন প্রাপ্ত বয়স্ক লোকের ছয়-আট ঘন্টা ঘুম প্রয়োজন।এই সময়টুকু যদি কেউ কোনো বাধা ছাড়াই,অবলীলায় ঘুমাতে পারে তাহলে বলায় যাই সে সুখী মানুষ।

ধন্যবাদ